অপরাধী এমপির ছেলে হলেও ছাড় দেয়নি সরকার: হানিফ

নিজস্ব প্রতিনিধি: আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুল আলম হানিফ বলেছেন, শেখ হাসিনার সরকার কোনো অপরাধীকে ছাড় দেয়নি। এমপির ছেলে হলেও কাউকে ছাড় দেওয়া হয়নি।প্রত্যেক অপরাধী শাস্তি পেয়েছে।

বুধবার (৪ নভেম্বর) বিকেলে চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবের বঙ্গবন্ধু হলে আয়োজিত প্রয়াত আওয়ামী লীগ নেতা আখতারুজ্জামান চৌধুরী বাবুর স্মরণ সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

হানিফ বলেন, নোয়াখালীর বেগমগঞ্জের ঘটনা, সিলেটের এমসি কলেজের ঘটনা নিন্দনীয়। আমি এসব ঘটনার নিন্দা জানাই।

এসব ঘটনার কারণে বিএনপি অপপ্রচারের সুযোগ পাচ্ছে। তবে সরকার কোনো অপরাধীকে ছাড় দেয়নি।

তিনি বলেন, দেশে উন্নয়ন হচ্ছে। দেশ এগিয়ে যাচ্ছে। কিন্তু বিএনপির নেতারা এসব উন্নয়ন চোখে দেখছেন না। তারা ষড়যন্ত্রে লিপ্ত রয়েছেন।

হানিফ বলেন, প্রয়াত নেতা আখতারুজ্জামান চৌধুরী বাবু ও এবিএম মহিউদ্দীন চৌধুরীর মতো নেতাদের আদর্শ ধারণ করে আমাদের রাজনীতি করতে হবে। তাদের দেখানো পথ অনুসরণ করতে হবে।

চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের প্রশাসক খোরশেদ আলম সুজন বলেন, দলের প্রকৃত কর্মীদের উচিত লুটেরাদের ঠেকানো। যারা সুদিনে দলে ভিড়েছে তারা কেউ দুর্দিনে থাকবে না। তাদের জন্য আমাদের দুর্নাম হচ্ছে।

শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল বলেন, “এক এগারোর সময় বাবা যখন বন্দি, তখন বাবু চাচা আমাদের সাহস যুগিয়েছিলেন। তিনি বলেছিলেন, যারা নেত্রীকে বন্দি করেছে, তারা সফল হবে না। আমাদের নেত্রীর নেতৃত্বেই পরবর্তী সরকার গঠিত হবে।”

চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোসলেম উদ্দিন আহমদের সভাপতিত্বে স্মরণ সভায় বিশেষ অতিথি ছিলেন আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন, ভূমিমন্ত্রী ও আখতারুজ্জামান চৌধুরী বাবুর ছেলে সাইফুজ্জামান চৌধুরী জাবেদ।

দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মফিজুর রহমানের সঞ্চালনায় স্মরণ সভায় বক্তব্য দেন উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এমএ সালাম, মহানগর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মাহতাব উদ্দিন চৌধুরী।

স্মরণ সভায় উপস্থিত ছিলেন উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শেখ আতাউর রহমান, দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি মোতাহেরুল ইসলাম চৌধুরী, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শাহজাদা মহিউদ্দীন, উপ-দফতর সম্পাদক বিজয় কুমার বড়ুয়া, দক্ষিণ জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও জাতীয় মহিলা সংস্থার চেয়ারম্যান চেমন আরা তৈয়ব, সাতকানিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও উপজেলা চেয়ারম্যান এমএ মোতালেবসহ আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ, স্বেচ্ছাসেবকলীগ, মহিলা আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা।

Related posts