কর্ণফুলী এ জে চৌধুরী কলেজকে অনিবার্যভাবে জাতীয়করণ করা হবে: ভুমিমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিনিধি – ১৯৭৫ সালের পরে যা কখনো কল্পনাও করা যেতো না, বাংলাদেশ আজ তা দেখিয়ে দিয়েছে। জননেত্রী শেখ হাসিনার দূরদর্শী ও যোগ্য নেতৃত্বে বাংলাদেশ আজ উন্নতির চরম শিখরের দ্বারপ্রান্তে। তাঁর সরকারের নিয়মের মধ্যে রয়েছে প্রতিটি উপজেলায় ১টি করে কলেজ সরকারিকরণের কথা, তাই কর্ণফুলী এ জে চৌধুরী কলেজকে অনিবার্যভাবে জাতীয়করণ করা হবে।
আজ ১৪ মার্চ ২০২০ শনিবার বেলা ১১টায় কর্ণফুলী এ জে চৌধুরী কলেজে আখতারুজ্জামান চৌধুরী বাবু আইসিটি ভবন, আখতারুজ্জামান চৌধুরী বাবু স্মৃতি মেধাবৃত্তি ও ম্যুরাল উদ্বোধন ও নবীন বরণ অনুষ্ঠানে কলেজ গভর্নিং বডির সভাপতি ও ভূমিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী জাবেদ এম.পি এ কথাগুলো বলেন।
তিনি বলেন, চট্টগ্রাম কর্ণফুলী উপজেলার একমাত্র কলেজ হিসেবে কর্ণফুলী এ জে চৌধুরী কলেজ সরকারি হবে। আইসিটি ভবন ও নবীন বরণ এবং আখতারুজ্জামান চৌধুরী বাবু স্মৃতি মেধাবৃত্তি ও ম্যুরাল উদ্বোধন অনুষ্ঠানে ভুমিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী এম.পি শিক্ষায় অভাবনীয় সাফল্য অর্জন করা সম্ভব হয়েছে বলে বাঙালি জাতি আজ বিশ্বের দরবারে সম্মানের ও গৌরবের আসন লাভ করেছে।
মন্ত্রী আরো বলেন, নবীন শিক্ষার্থীদের মাদকমুক্ত, সন্ত্রাসমুক্ত, অসম্প্রদায়িক জাতি গঠনে ভূমিকা রাখার জন্য আহবান করেছেন। মুক্তিযুদ্ধের সঠিক ইতিহাস অনুধাবন করার জন্য মুজিববর্ষে এ কলেজে মুজিব কর্ণার স্থাপন ২০২০-২০২১ শিক্ষাবর্ষ থেকে অনার্স কোর্স চালু করার ঘোষণা দেন।
অধ্যক্ষ মোহাম্মদ জসীম উদ্দীনের সভাপতিত্বে ও অধ্যাপক শামীমা আকতার চৌধুরীর সঞ্চালনায় অুনষ্ঠিত এ সভায় বক্তব্য রাখেন কর্ণফুলী উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব ফারুক চৌধুরী, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ নোমান হোসেন, কর্ণফুলী উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক হায়দার আলী, গভর্নিং বডির সদস্য যথাক্রমে আলহাজ্ব সৈয়দ জামাল আহমদ, মোঃ নজরুল ইসলাম চৌধুরী, আনোয়ারা উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি অধ্যাপক আব্দুল মন্নান চৌধুরী ও সাধারণ সম্পাদক আব্দুল মালেক, কর্ণফুলী উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মোঃ দিদারুল ইসলাম চৌধুরী, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান বানাজা বেগম, শিকলবাহা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব জাহাঙ্গীর আলম, গভর্নিং বডির সদস্য যথাক্রমে মোঃ ফোরকান উদ্দীন, মোঃ জাফর ইকবাল, মোঃ ইলিয়াছ, মোঃ হারুন অর রশীদ , অধ্যাপক মোঃ শফিকুর রশীদ ও উপাধ্যক্ষ সমীর রঞ্জন নাথ।
সভার শুরুতে পবিত্র কোরআন তেলাওয়াতের পর জাতীয় সঙ্গীত ও আবাহন সংগীত পরিবেশন করা হয়। প্রধান অতিথি পুষ্পস্তবক দিয়ে নবীনদেরকে বরণ করে নেন।
সভাশেষে কলেজের সাংস্কৃতিক ফোরামের সদস্য ও অতিথি শিল্পীবৃন্দের পরিবেশনায় মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিবেশিত হয়।

Related posts