বাড়ছে নদীর পানি, ডুবছে প্যারিস

সেন নদীর পানির বাড়ার ফলে ডুবছে প্যারিসের বিভিন্ন অংশ। ব্যাহত হচ্ছে ফ্রান্সের রাজধানীর জীবনযাত্রা। গতকাল সোমবার প্যারিসজুড়ে সতর্কতা জারি করা হয়েছে।
গতকাল নদীর পানির ৫ দশমিক ৮৪ মিটার (১৯ ফুট) বেড়েছে, যা স্বাভাবিকের তুলনায় চার মিটার বেশি। এই কারণে নদীর কাছাকাছি বসবাসরত নাগরিকদের বন্যার ব্যাপারে সতর্ক করা হয়েছে।
নদীর আশপাশের এলাকা থেকে দেড় হাজার বাসিন্দাকে অন্যত্র স্থানান্তর করা হয়েছে। অনেক বাড়িতে বিদ্যুৎ-সংযোগ বিচ্ছিন্ন রয়েছে। ফ্রান্সে যাওয়া পর্যটকেরা প্যারিস নগরের বাটিউক্স মৌচিসে নৌভ্রমণ ও সৌন্দর্য অবলোকন থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন। আজ মঙ্গলবারের আগে পানি কমতে শুরু করার কোনো সম্ভাবনা নেই বলে ধারণা করা হচ্ছে।
নদীর তীরবর্তী বেশির ভাগ এলাকাই প্লাবিত। বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে ল্যুভর জাদুঘরের একটি অংশ। প্লাবিত হয়েছে আইফেল টাওয়ারের নিচের অংশ।
২০১৬ সালে সেন নদীর পানি ৬ দশমিক ১ মিটার বেড়েছিল। তখন ল্যুভর জাদুঘরের অনেক শিল্পকর্ম অন্যত্র সরিয়ে নিতে হয়েছিল। এবার নদীর পানি ওই পরিমাণ বাড়বে না বলে ধারণা। তবে প্রস্তুত রয়েছে কর্তৃপক্ষ। প্রয়োজনে সরিয়ে নেওয়া হবে বিভিন্ন শিল্পকর্ম।
১৯১০ সালের বন্যায় সেন নদীতে থাকা ভাস্কর্যের গলা পর্যন্ত পানি পৌঁছেছিল। তখন প্যারিস শহর পুরো দুই মাস পানির নিচে ছিল।

Related posts

Leave a Comment