শীতের আনন্দ যেন গ্রামাঞ্চলেই বেশী

রিপোর্ট
শওকত আলী পারভেজ

বার্তা সম্পাদক
সারা আনোয়ারা
১৮-১২-২০১৮

” (এই শীতে) স্নান যে করে আর স্নান যে সহে/তব ঘৃণা তারে যেন তৃণসম দহে”

-রবিন্দ্রনাথ ঠাকুর

বাংলাদেশে ছয়টি ঋতু। এর মধ্যে পৌষ ও মাঘ মাস হলো শীত ঋতু। কথায় বলে—’মাঘের শীতে বাঘ কাঁপে’। শুধু বাঘ নয়, পৌষ-মাঘে যখন কনকনে শীত পড়ে তখন অনেক মানুষও কাঁপে শীতে— বিশেষ করে গ্রামাঞ্চলের গরিব মানুষেরা। কিন্তু শীত শুধু হাড়ই কাঁপায় না; নানান বৈচিত্র্য আর মজাদার উপহারের ডালি নিয়েও আসে আমাদের জন্য। শহরে লাখ লাখ মানুষের বসতি। অগণিত বিজলী বাতি। অনেক দোকানপাট আর কলকারখানা। তাই গ্রামের তুলনায় আমাদের দেশে শহরাঞ্চলে শীতের তীব্রতা কম।

শীতের সকাল মানে গ্রামের বাড়ীতে উঠানে জড়ো হয়ে রোদ পোহানো,আর সন্ধ্যা বেলায় আগুনের তাপে উঞ্চতার অনুভব।

শীতকাল মানেই রকমারি পিঠার সমাহার সকালে ঘুম থেকে উঠে কাঁপা কাঁপা হাতে খেজুরের রস দিয়ে ভাপা পিঠা এছাড়াও কুশলি, চিতই, পাকান, ম্যারা, ফুলপিঠা, পাটি সাপটা, পুলি, শ্যাওই ইত্যাদি উল্লেখযোগ্য।

শীতকাল মানেই দেশীয় মাছের স্বাদ বেড়ে যাওয়া।নদীমাতৃক এই দেশে সারা বছর কোন না কোন মাছ পাওয়া গেলে ও শীতকালে দেশীয় মাছের স্বাদ বেড়ে যায়। বড় বড় শৈল-বোয়াল-গজার-টাকি, শিং-মাগুর-কৈ-মেনি, খয়রা-পুটি-সরপুটি-বাইন-পাবদা-ট্যাংরা ইত্যাদি মাছের স্বাদ যেন দ্বিগুণ হয়ে যায়।

শীতকাল মানেই বাংলাদেশের বিলে বিলে অতিথি পাখির আগমন। বাংলাদেশের হাওর বাওড় বিলের মতো আনোয়ারার বড় বড় বিলে অতিথি পাখির আগমন লক্ষ্য করা যায়।আগ্রাহায়নের আমান ধান কাটার সাথে সাথে অতিথি পাখি সুর উপভোগ করেন কৃষকরা।

শীতকাল মানেই রকমারি শাক-সবজির সমাহার। আমাদেশের দেশে বছরের সবসময় সবজি পাওয়া গেলেও শীতের সবজির মজাই আলাদা। শীত কালের সবজির মধ্যে রয়েছে ফুলকপি, বাঁধাকপি, ওলকপি, সিম, টমেটো, গাজর, নতুন আলু, পেঁয়াজের ফুল, পালংশাক, খেসারি শাক, ছোলার শাক,লাল শাক,মেটে আলু, পেয়াজের কলি, সহ বিভিন্ন ধরনের শাক সবজি।

বেড়ানোর উপযুক্ত সময় যেন শীতকাল। পাহাড়ে ঘেরা আমাদের এই পার্বত্য চট্টগ্রামে রয়েছে বিশ্বের দীর্ঘতম সমুদ্র সৈকত কক্সবাজার,এছাড়াও রয়েছে বান্দরবান নীলগিরী, নীলাচল, রাঙ্গামাটি, আনোয়ারার পারকি সমুদ্র সৈকত।

গ্রামাঞ্চলে শীতের আনন্দটা বেশী হলেও গরিবের জন্য শীতকাল যেন অভিশাপ হয়ে আসে।

Related posts

Leave a Comment