আনোয়ারাতে ছেলেধরা গুজবে অসহায় মানুষকে মারধর , যে কোন সময় হতে পারে বড় অঘটন

ডেস্ক রিপোর্ট
সারা আনোয়ারা
০৩-০৭-২০১৯

গত কিছুদিন ধরে আনোয়ারাতে ছেলে ধরা গুজবটি ছড়িয়ে পড়েছে। কিছু অনলাইন পেজ ও ব্যক্তি নিজেদের ফেসবুক আইডিতেও এধরনের পোষ্ট করতে দেখা গেছে।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায় , আজ ৩রা জুলাই সকালে বরুমচড়া নলদিয়া ৪নং ওয়ার্ড লুদি মাঝির বাড়িতে এরকম একটি ঘটনা ঘটে।

ছবির লোকটি মোহাম্মদ আলী, বাড়ি বরুমচড়া ৯ নং ওয়ার্ড। গুজবে কান দিয়ে ছেলেধরা বলে উনাকে গণধোলাই দেওয়া শুরু করে এক সময় মেরেই ফেলত। পরে পরিচিত কেউ চিনে ফেললে মোহাম্মদ আলী বেঁচে যায়। অথচ খবর নিয়ে জানা যায় লোকটি মানসিক ভাবে অসুস্থ।

কদিন আগে একি ধরনের ঘটনায় একজন মানসিক প্রতিবন্ধী কে গনধোলাই দিয়ে আনোয়ারা থানায় সোপর্দ করা হলেও পরে খবর নিয়ে জানা যায় সে লোকটিও মানসিক প্রতিবন্ধী। একি ঘটনায় গতকাল দুজন মহিলাকেও ধরা হয়। পরে জানা যায় উনারা ভিক্ষুক।

এ ব্যপারে প্রশাসনিক হস্তক্ষেপের বিষয়ে জানতে চাইলে আনোয়ারা থানা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শেখ জোবায়ের আহমদ , সারা আনোয়ারা কে বলেন, আমার কাছে বাচ্চাধরা নিয়ে কোন কেউ কোন অভিযোগ করতে আসেনি। এরকম কোন বিষয় আসলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

আনোয়ারা থানার ইনচার্জ (ওসি) দুলাল মাহমুদ সারা আনোয়ারাকে বলেন , কদিন আগে কিছু লোক ছেলেধরা অভিযোগে দুজনকে ধরে নিয়ে আসছিল কিন্তু দেখলাম তারা দুজনই মানসিক ভারসাম্যহীন । তাই ছেড়ে দেয়া হয়েছে । গতকাল দুজন মহিলা ব্যাপারে জেনেছি দেখা গেল তারা ভিক্ষুক। এটা সম্পুর্ণ গুজব তাই এ বিষয়ে কোন গুজবে কান না দিয়ে এবং আতংকিত না হয়ে সবাইকে ছেলেমেয়ে সন্তানদের নিয়ে সতর্কতা ও সজাগ থাকার আহবান জানান।

Related posts