কর্ণফুলী ও লোহাগড়ায় র‍্যাবের পৃথক অভিযানে ইয়াবা সহ আটক দুই

নিজস্ব প্রতিনিধি:

চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কের কর্ণফুলী ও লোহাগাড়া উপজেলায় অভিযান চালিয়ে, ২৬ হাজার ৩০০ পিস ইয়াবা উদ্ধার করেছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)। এ সময় দুইজন মাদক ব্যবসায়ীসহ একটি কাভার্ডভ্যান জব্দ করা হয়। উদ্ধারকৃত ইয়াবার আনুমানিক মূল্য ৭৮ লক্ষ্য ৯০ হাজার টাকা।

রোববার (১৮ এপ্রিল) ও সোমবার (১৯ এপ্রিল ) লোহাগড়া উপজেলার চুনতির ও কর্ণফুলী উপজেলার শিকলবাহা এলাকায় পৃথক দুটি অভিযান চালিয়ে মাদক উদ্ধার করা হয়।

আটক মাদক ব্যবসায়ীরা হলেন কক্সবাজার জেলার টেকনাফ থানার ডেইল পাড়া কলেজ রোডের মৃত ফয়সল আহমেদের পুত্র নূর আলম (৪৩) এবং কক্সবাজার জেলার রামু থানার উত্তর মিঠাছড়ি হাসপাতাল এলাকার ওবাইদুর রহমানের পুত্র শাফায়েত উল্লাহ (২৩)

র‌্যাব-৭- সূত্রে জানা যায় গোপন সংবাদের মাধ্যমে জানতে পারে ট্রাকে করে বিপুল পরিমাণ ইয়াবা কক্সবাজার হতে চট্টগ্রামের দিকে নিয়ে আসা হচ্ছে। সংবাদের ভিত্তিতে মহাসড়কের লোহাগড়ার চুনতি গ্রামের ফোর সিজন রেস্টুরেন্ট এন্ড রিসোর্ট এলাকায় চেকপোস্ট বসিয়ে গাড়ি তল্লাশি শুরু করে র‌্যাব সদস্যরা। চেকপোস্টের দিকে আসা একটি ট্রাকের গতিবিধি সন্দেহজনক মনে হলে র‌্যাব সদস্যরা ট্রাকটি থামানোর সংকেত দেয়। এ সময় ট্রাক থামিয়ে ট্রাকের হেলপার সুকৌশলে পালানোর চেষ্টা করে। এ সময় র‌্যাব সদস্যরা তাকে ধাওয়া দিয়ে ধরে ফেলে।

পরে জিজ্ঞাসাবাদে আসামি ইয়াবা পাচারের বিষয়টি স্বীকার করে। এ সময় বিশেষ কায়দায় লুকানো ৬,৬০০ পিস ইয়াবা জব্দ করা হয়।যার আনুমানিক মূল্য ১৯ লক্ষ ৮০ হাজার টাকা।

র‍্যাব সূত্রে আরও জানা যায় পৃথক অভিযানে কর্ণফুলী উপজেলার শিকলবাহা ইউনিয়নের সাকিনস্হ ওয়াই জংশন রাশেদ সওদাগরের শাহ চন্দ্রপুরী চায়ের দোকান এলাকায় পাকা রাস্তার উপর চেকপোস্ট বসিয়ে গাড়ি তল্লাশি করলে এইসময় একটি কাভার্ডভ্যানের গতিবিধি সন্দেহ হলে গাড়িটি চেকপোস্টের সামনে থামিয়ে চালক গাড়ি থেকে নেমে সুকৌশলে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করলে র‍্যাব সদস্যরা তাকে আটক করা হয়।তার দেখানো তথ্যমতে চালকের সিটের পিছনে একটি ব্যাগের ভেতরে লুকানো ১৯ হাজার ৭,শ পিস ইয়াবা জব্দ করা হয় যার আনুমানিক মূল্য ৬৯ লক্ষ্য ১০ হাজার টাকা।

এ ঘটনায় আটক আসামি ও উদ্ধার ইয়াবা পরবর্তী আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য জেলার লোহাগড়া ও কর্ণফুলী থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

Related posts