মইজ্জারটেক পশুর হাটে পশু থাকলেও ক্রেতার দেখা নেই!

নিজস্ব প্রতিনিধি – আর মাত্র চারদিন পার হলে পবিত্র ঈদুল আযহা অনুষ্ঠিত হবে সারাদেশে অথচ কোরবানি উপলক্ষে পশুর হাট গুলোতে প্রচুর পরিমাণ পশু দেখা গেলেও মিলছে না ক্রেতা।

এমনি পরিস্থিতি দেখা গেছে চট্টগ্রাম কর্ণফুলী উপজেলায় অবস্থিত সবচাইতে বড় বাজার মইজ্জের টেকে।

২৬জুলাই রবিবার দুপুরে মইজ্জের টেক পুরো পশুর বাজারটি ঘুরে দেখা যায় চট্টগ্রাম সহ বিভিন্ন অঞ্চল থেকে গরু এসেছে বাজারটিতে বড় ছোট সব রকমের গরু বাজারে আসলেও ক্রেতার কোনো দেখা নেই।

এতে হতাশায় দিন কাটাচ্ছে বিক্রেতারা লক্ষ লক্ষ টাকার গরু বাজারে তুলেও এখনো গরু বিক্রি হচ্ছে না।

বছরের পর বছর পশু পালন করে এখন হতাশায় দিন কাটাতে হচ্ছে বিক্রেতাদের এমনি পরিস্থিতিতে অনেকেই পশু পালন না করা সিদ্ধান্ত নিচ্ছেন।

এই কি করোনার কারণে নাকি অন্য কারণে যাবে কি বিশ্ব থেকে করোনা ভাইরাস এইসব প্রশ্ন এখন সবারি মুখে।

এইসব বিষয়ে কুষ্টিয়ার রিপন নামের এক বিক্রেতা বলেন আমি গত মঙ্গলবারে এই বাজারে গুরু আনছি ১৩টি এখনো একটি গরু বিক্রি করছি এইখানে ক্রেতা আসতেছে না আমরা খুবই হতাশায় দিন কাটাচ্ছি।

আরেক বিক্রেতা রশিদ বলেন আমি গত বুধবারে ১৫টি গরু আনছি এই বাজারে মাত্র দুইটি গরু বিক্রি হয়েছে এখনো পযন্ত বাকি গরু গুলো বিক্রি করতে পারব কিনা তাও এখনো নিশ্চিত না গরু গুলোকে আমরা লালন পালন করি নিজের সন্তানের মত বছর শেষে কিছু টাকা পাবার আশায় কিনতু এবারের বাজার খুবই ভিন্ন গরু আছে বাজারে প্রচুর কিনতু ক্রেতা নেই তাই দুশ্চিন্তায় আমরা দিন কাটাচ্ছি।

পশুর হাটে ক্রেতা না আসার বিষয়ে শান্ত নামের এক গরু বিক্রেতা বলেন দেশে করোনা ভাইরাস আসায় ক্রেতারা এইবার হাটে আসতেছে না ক্রেতারা গ্রামগঞ্জ থেকে কোরবানির জন্য পশু নিয়ে নিচ্ছে শান্ত আরও বলেন আমি গত সোমবারে ১২টি গরু এই বাজারে আনলেও মাত্র তিনটি গরু বিক্রি করতে পারছি।

প্রায় দেড় ঘন্টা বাজারে ঘুরে এত বড় বাজার কর্ণফুলী উপজেলার মইজ্জের টেক পশুর হাটে কোনো ক্রেতার দেখা না পাওয়ায় বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি।

করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে বাজারের ইজারাদার এম জাহাঙ্গীর আলমের সাথে কথা বললে তিনি বলেন উপজেলার সবচাইতে বড় বাজার এইটি আমরা করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে বাজারে কাউকে মাক্স ছাড়া প্রবেশ করতে দিচ্ছি না তাছাড়া প্রতি মুহূর্তে করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে মাইকিং করা হচ্ছে জাল নোট নিশ্চিত করার জন্য মিশিন বসানো হয়েছে এছাড়াও কর্ণফুলী থানা পুলিশ আমাদের সর্বাধিক সহযোগিতা করতেছে।

Related posts